ইঙ্গ-ফরাসি প্রতিদ্বন্দ্বীতা || The Anglo-French rivalry


• অস্ট্রিয়ার ষষ্ঠ চার্লসের মৃত্যুর পর তার কন্যা মারিয়া টেরেসা সিংহাসনে বসেন। দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে প্রাশিয়ার রাজা দ্বিতীয় ফ্রেডারিক অস্ট্রিয়ার সমৃদ্ধশালি অঞ্চল সাইলেশিয়া দখল করেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে 1740 খ্রিস্টাব্দে অস্ট্রিয়ার উত্তরাধিকার যুদ্ধ শুরু হয়। এই সময় ইংল্যান্ড অস্ট্রিয়া কে এবং ফ্রান্স প্রাশিয়াকে সমর্থন করে। ভারতেও দুই বণিক গোষ্ঠীর মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়।

প্রথম কর্ণাটকের যুদ্ধ (1746-1748) : 1743 খ্রিস্টাব্দে মারাঠাদের সঙ্গে সংঘর্ষে কর্নাটকের নবাব দোস্ত আলীর মৃত্যু ঘটলে আনোয়ারউদ্দিন কর্নাটকের সিংহাসনে বসেন। 1745 খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ সেনাপতি কমডোর বার্নেট কয়েকটি ফরাসি যুদ্ধ জাহাজ দখল করে নিলে ফরাসিদের সঙ্গে তাদের যুদ্ধ শুরু হয় (কর্নাটকের প্রথম যুদ্ধ)। পন্ডিচেরির ফরাসি শাসনকর্তা ডুপ্লে কে সাহায্যের জন্য মরিশাসের ফরাসি গভর্নর লা-বুরদনে আটটি যুদ্ধ জাহাজ নিয়ে মাদ্রাজে উপস্থিত হলে ইংরেজরা মাদ্রাজ ত্যাগ করে পূর্ব উপকূলে হুগলিতে আশ্রয় গ্রহণ করে। ডুপ্লে অতি সহজে মাদ্রাস দখল করে। মাদ্রাজ ছিল কর্ণাটক রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত আনোয়ারউদ্দিনের শাসনাধীন অঞ্চল। 1746 খ্রিস্টাব্দে কর্ণাটকের নবাব আনোয়ারউদ্দিনের বিশাল বাহিনী এবং ফরাসি বাহিনীর মাত্র 930 জন (230 জন ইউরোপীয়) সৈন্যের মধ্যে মাইলাপুর বা সেন্ট থোমের যুদ্ধ সংঘটিত হয়। নবাবের বাহিনী এই যুদ্ধে পরাজিত হয়। 1748 খ্রিস্টাব্দে আই-লা-স্যাপেল এর সন্ধি দ্বারা ইউরোপে অস্ট্রিয়ার উত্তরাধিকার সংক্রান্ত যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটলে ভারতে প্রথম কর্ণাটকের যুদ্ধের অবসান হয়।

দ্বিতীয় কর্ণাটকের যুদ্ধ (1749-1755 খ্রিস্টাব্দ) : 1748 খ্রিস্টাব্দে হায়দ্রাবাদের নবাব নিজাম-উল-মুলক এর মৃত্যু হলে তার দ্বিতীয় পুত্র নাসির জঙ্গ ও দৌহিত্র মুজাফফর জঙ্গ এর মধ্যে সিংহাসন নিয়ে বিবাদ শুরু হয়। অপরদিকে কর্ণাটকের সিংহাসন নিয়ে আনোয়ারউদ্দিন ও চাঁদ সাহেবের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। 1749 খ্রিস্টাব্দে চাঁদ সাহেব, মুজাফফর জঙ্গ ও দুপ্লের ফরাসি বাহিনী মিলিত ভাবে আনোয়ারউদ্দিনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ যাত্রা করেন। ভেলোরের কাছে অম্বুরের যুদ্ধে আনোয়ারউদ্দিন নিহত হন এবং চাঁদ সাহেব কর্নাটকের সিংহাসনে বসেন। অপরদিকে মুজাফফর জঙ্গ হায়দ্রাবাদের সিংহাসনে বসেন। দাক্ষিণাত্যে ফরাসিদের প্রাধান্য লক্ষ্য করে ইংরেজরা আনোয়ারউদ্দিনের পুত্র মহম্মদ আলীকে কর্নাটকে এবং নিজামের পুত্র নাসির জঙ্গকে হায়দ্রাবাদের সিংহাসনে বসাতে তৎপর হলে, 1749 খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ ও ফরাসিদের মধ্যে দ্বিতীয় কর্ণাটকের যুদ্ধ শুরু হয়।

তৃতীয় কর্ণাটকের যুদ্ধ (1756-1763 খ্রিস্টাব্দ) : 1756 খ্রিস্টাব্দে ইউরোপে সপ্তবর্ষব্যাপী যুদ্ধ শুরু হলে ভারতে তৃতীয় ইঙ্গ ফরাসি যুদ্ধ শুরু হয়। 1757 খ্রিস্টাব্দে ইংরেজরা ফরাসি ঘাটি চন্দননগর দখল করে। 1758 খ্রিস্টাব্দে ফরাসি সেনাপতি কাউন্ট ডি লালি মাদ্রাজ আক্রমণ করে ব্যর্থ হন। 1760 খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ সেনাপতি আয়ারকুট বন্দিবাসের যুদ্ধে ফরাসি সেনাপতি লালি কে পরাজিত করেন। 1761 খ্রিস্টাব্দে পন্ডিচেরি ইংরেজদের হস্তগত হয়। 1762 খ্রিস্টাব্দে ভারতে ফরাসি শক্তির অবসান ঘটে। 1763 খ্রিস্টাব্দে প্যারিস এর সন্ধি দ্বারা ইউরোপে সপ্তবর্ষব্যাপী যুদ্ধের অবসান ঘটলে, ভারতেও দুই পক্ষের মধ্যে শান্তি স্থাপিত হয়।

No comments:

Post a Comment

Note: only a member of this blog may post a comment.